1. admin@gonopotrika.com : admin :
শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ০৬:৪১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
অভয়নগরে মাছের ঘের ভয়ভীতি দেখিয়ে জবরদখল করার অভিযোগ : রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা। মহাদেবপুরে বজ্রপাতে এক কৃষকের মৃত্যু হরিপুরে ১২বোতল বিদেশি মদসহ গ্রেফতার -১ ভোলার গৃহবধূ সানজিদাকে হত্যা করা হয়েছে, অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে ডিমলায় বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন। কুড়িগ্রামে শিশুদের প্রতি সহিংসতা বন্ধে স্থানীয় স্টেক হোল্ডারদের সাথে সংলাপ অনুষ্ঠিত আত্রাইয়ে জয় বাংলা ঐক্য পরিষদের কমিটি গঠন সভাপতি চঞ্চল!! সম্পাদক সজল ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিশ্বের সকলের সাথে বানিজ্যিক সম্পর্ক দৃঢ় করতে চায় ভোলা সদর উপজেলায় এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু আমতলীতে বিদ্যালয় চলাকালীন সময়ে প্রাইভেট পড়াচ্ছেন সহকারী শিক্ষক

কুড়িগ্রামে চাঁদাবাজির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় যাত্রাপুর ইউপি সদস্য বরখাস্ত

  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২৩
  • ১২৩ বার পঠিত

 

মোঃবুলবুল ইসলাম

কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামে চাঁদাবাজি ও বাড়িঘর ভাঙচুরের ঘটনা তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় ইউপি সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় স্থানীয় সরকার পল্লী ও সমবায় মন্ত্রণালয় ইউপি-১ শাখা এক প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।
স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব জেসমীন প্রধান গত ১২ অক্টোবর’২৩ স্বাক্ষরিত এক পত্রে এই প্রজ্ঞাপন জারি করেন।
জারিকৃত প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয় ‘যেহেতু কুড়িগ্রাম সদর উপজেলাধীন যাত্রাপুর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের সদস্য আনোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে সদর থানায় দায়েরকৃত মামলা নং-১৪, তাং-৮ নভেম্বর’২২ গৃহীত হওয়ায় স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন, ২০০৯-এর ৩৪(১) ধারা অনুযায়ী কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করায় ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেনকে স্বীয় পদ থেকে সাময়িকভাবে দরখাস্ত করা হলো।’ ২৩ অক্টোবর-২৩ইং তারিখের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশের সন্তোষজনক জবাব না দিলে চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত করার সুপারিশ করেছেন কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত যাত্রাপুর ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে সমস্ত অভিযোগ মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক। আমি কোনভাবেই চাঁদাবাজি কিংবা ভাঙচুরের সাথে জড়িত ছিলাম না। আমাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। আমি আজকালের মধ্যে ডিসি স্যারের চাওয়া জবাব প্রদান করব।’

এ ব্যাপারে সংরক্ষিত নারী ইউপি সদস্য আন্না খাতুনের দেবর মামলার বাদী এরশাদুল হক বলেন, ‘একজন ইউপি সদস্য জনগণের সেবক না হয়ে যখন সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে লিপ্ত হয়, তখন জনপ্রতিনিধির কাছে আর কি প্রত্যাশা করা যায়। জেলা প্রশাসককে ধন্যবাদ জানাই এই কারণে যে, সন্ত্রাসী ইউপি সদস্য আনোয়ার মেম্বারের বিরুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করায়। তাকে বরখাস্ত করার মধ্য দিয়ে সমাজে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক।’

এ ব্যাপারে কথা হলে কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল আরীফ বলেন, ‘ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেনের অপরাধ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হওয়ায় তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। আগামী দশ কার্য দিবসের মধ্যে কেন তাকে চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত করা হবে না-এই মর্মে একটি কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। তিনি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সন্তোষজনক জবাব না দিলে তাকে চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত করা হবে।’

উল্লেখ্য, গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে যাত্রাপুর ইউপির সংরক্ষিত (৭,৮,৯) ওয়ার্ডের নারী সদস্য আন্না খাতুনের দেবর নুর আলমের নিকট নির্বাচনী ব্যয় বাবদ ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন ও তার লোকজন। এরই প্রেক্ষিতে সংরক্ষিত ইউপি সদস্যের দেবর এরশাদুল হক বাদী হয়ে ২১জনকে আসামী করে কুড়িগ্রাম সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

Facebook Comments Box
এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩ গণ পত্রিকা
Theme Customized By Shakil IT Park