1. admin@gonopotrika.com : admin :
রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০১:০৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
রাজশাহীর বাঘায় ৬০০ পিচ ইয়াবাসহ আটক ১ কলকাতার পৃথিবীর বৃহত্তম যৌনপল্লী সোনাগাজীতে পালিত হল ২৯ তম জন্মবার্ষিকী উৎসব। কোটচাঁদপুরে বলুহর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম এর কাজই হামলা মামলা করা। হরিপুরে ১২০ গ্রাম গাঁজাসহ গ্রেফতার-১ ভোলায় মায়ের সাথে অভিমান করে স্কুল শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা। প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন প্রতি বছর ১ হাজার তরুন-তরুণি প্রশিক্ষণ নিয়ে নিজের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে পারবে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যে দিয়ে বিআরইউ’র ১২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন প্রবাসী যুবকের রহস্যজনক মৃত্যুতে আসামিদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল! ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশের অভিযানে মাদকদ্রব্য উদ্ধার গ্রেফতার-৪ লালমনিরহাটে ইন্স্যুরেন্সের আড়ালে অসামাজিক কার্যকলাপ-আটক ৪

নওগাঁ-৫ (সদর) আসনে দু’দলেরই হাফ ডজন মনোনয়ন প্রত্যাশী; সাধারণ মানুষদের চাওয়া যানজট মুক্ত আধুনিক একটি শহর

  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ১১ অক্টোবর, ২০২৩
  • ১১২ বার পঠিত

আব্দুর রউফ রিপন, নওগাঁ প্রতিনিধি:

উত্তরবঙ্গের কৃতি সন্তান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, বাংলাদেশ আ’লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী প্রয়াত আব্দুল জলিলের আসন হচ্ছে নওগাঁ-৫ (সদর) আসন। একটি প্রথম শ্রেণির পৌরসভা ও ১২টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত এই আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ৩৪২৯২৫ জন। তার মধ্যে পুরুষ ১৭১৫৫৫ জন এবং নারী ১৭১৩৭০ জন।

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নওগাঁ-৫ (সদর) আসনের প্রার্থীদের তোড়জোড় শুরু হয়ে গেছে। যে যার মতো সমর্থিত নেতাকর্মীদের নিয়ে নির্বাচনী গনসংযোগ, শোভাযাত্রা ও উঠান বৈঠক অব্যাহত রাখার মাধ্যমে নির্বাচনী মাঠ গরম করার কাজ করছেন। এই আসনে আ’লীগ এবং বিএনপিতে আছে হাফ ডজন করে মনোনয়ন প্রত্যাশী। নির্বাচনে যদি বিএনপি অংশগ্রহণ করে সেক্ষেত্রে আ’লীগের প্রার্থী বাছাইয়ে ভুল হলে আবারও বিএনপির ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত আসনটি চলে যাবে বিএনপির ঘরে এমনটিই মনে করছেন রাজনৈতিক বোদ্ধারা।

সূত্রে জানা, ১৯৯১ এবং ৯৬ সালে এই আসনে বিএনপি থেকে মনোনয়ন নিয়ে বিজয়ী হন প্রয়াত শামসুদ্দিন আহমেদ। তার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন প্রয়াত নেতা আব্দুল জলিল। এরপর ২০০১ সাল থেকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত এই আসনের এমপি ছিলেন উত্তরবঙ্গের সিংহ পুরুষ আব্দুল জলিল। ২০১৩সালে ৬মার্চ সিঙ্গাপুরে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন আব্দুল জলিল। তার অবতর্মানে জেলা আ’লীগের হাল ধরেন সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেক। সে সময় দলকে সাংগঠনিক ভাবে শক্তিশালী করে গড়ে তুলতে ভূমিকা রাখেন তিনি। যার ফলে উপ-নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় আব্দুল মালেক প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। পরে ২০১৪সালের ৫জানুয়ারির নির্বাচনে তিনি নৌকা প্রতিক নিয়ে জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি ও বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব রফিকুল ইসলাম রফিককে হারিয়ে আবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। দলে বিভেদের কারণে ২০১৮সালে প্রয়াত আব্দুল জলিলের ছেলে ব্যারিস্টার নিজাম উদ্দিন জলিল জনকে নৌকা প্রতিক দিলে আব্দুল জলিলের প্রতি মানুষের ভালোবাসার বহি:প্রকাশ হিসেবে বিপুল ভোটে জন এমপি নির্বাচিত হন। এরপর দলের সিনিয়র, ত্যাগী ও কর্মীবান্ধব নেতাদের মূল্যায়ন না করার কারণে দলের মাঝে বিভক্তের সৃষ্টি হয়। ফলে বর্তমান এমপি থেকে অনেক নেতারা দূরে রয়েছেন। কোনঠাসা হয়ে পড়েছেন অনেক নেতাকর্মী। বর্তমান এমপি জন বাবার মতো দলকে তেমন সুসংগঠিত করতে পারেননি বলে ত্যাগী নেতাকর্মীরাসহ সচেতনমহল মনে করছেন। যার ফলে দিনের পর দিন দলের মধ্যে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। আর এই কারণেই এবার মনোনয়ন প্রত্যাশীরা জোরেশোরে প্রচার প্রচারণার মাধ্যমে কেন্দ্রীয় নেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করছেন।

আর সাধারণ ভোটারদের চাওয়া অংশগ্রহণমূলক একটি নির্বাচন। যার ভোট সে যেন একটি সুষ্ঠ, সুন্দর, শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিয়ে আবার বাড়ি ফিরে আসতে পারে এমন পরিবেশ দাবী সাধারণ মানুষদের। আগামীতে যে ব্যক্তিই এমপি নির্বাচিত হোন না কেন তিনি যেন সময়ের সঙ্গে এই শহরটাকে যানজট মুক্ত আধুনিকায়ন করার একটি সুদূর প্রসারী পরিকল্পনা গ্রহণ করবেন যে পরিকল্পনা বাস্তবায়নের মধ্যদিয়ে যন্ত্রনার শহর থেকে নওগাঁবাসীকে মুক্তি দিয়ে প্রাণখোলা সুস্থ্য একটি শহর বিনির্মাণ হবে। শহরে ছেলেদের একাধিক সরকারি বিদ্যাপিঠ থাকলেও মেয়েদের নেই যার কারণে অনেক মেয়েদের মেধা থাকলেও প্রতিষ্ঠানের অভাবে সরকারি ভালো বিদ্যাপিঠে অধ্যায়ন করা হচ্ছে না। তাই আগামীতে যিনি এমপি নির্বাচিত হবেন তার কাছে এই জনগুরুত্বপূর্ণ সমস্যাটি সমাধানের জোরালো পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন এমনটিই আশা নওগাঁবাসীর।

আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে নৌকা প্রতিকের মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে বর্তমান সাংসদ ব্যারিস্টার নিজাম উদ্দিন জলিল জন এর পাশাপাশি নওগাঁ পৌর আ’লীগের সভাপতি দেওয়ান ছেকার আহমেদ শিষাণ, জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি ও সংরক্ষিত আসনের সাবেক এমপি শাহিন মনোয়ারা হক, সহ-সভাপতি ও সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো. রফিকুল ইসলাম রফিক ও জেলা যুবলীগের সভাপতি খোদাদাদ খান পিটুর নাম শোনা যাচ্ছে। ইতিমধ্যেই অনেকেই নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে নির্বাচনের মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। এছাড়া শারীরিক ভাবে সুস্থ থাকলে জেলা আ’লীগের সভাপতি ও সাবেক এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেকও নৌকার মনোনয়ন চাইতে পারেন বলে জানা গেছে।

অপরদিকে বিএনপি রয়েছে তাদের একদফা দাবী আদায়ের আন্দোলনে। যদি নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করে তাহলে এই আসন থেকে অনেকেই মনোনয়ন চাইতে পারেন। মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে রয়েছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য লে. কর্ণেল (অব.) আব্দুল লতিফ খান, জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু বক্কর সিদ্দিক নান্নু, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ও নওগাঁ পৌর মেয়র আলহাজ্ব নজমুল হক সনি, সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম ধলু, জেলা বিএনপির সদস্য সচিব বায়েজিদ হোসেন পলাশ এবং বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক মামুনুর রহমান রিপন। এছাড়াও এই আসন থেকে জেলা জাতীয় পার্টি, জাসদের (ইনু) পক্ষ থেকেও অনেকেই মনোনয়ন চাইতে পারেন।

Facebook Comments Box
এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩ গণ পত্রিকা
Theme Customized By Shakil IT Park