1. admin@gonopotrika.com : admin :
মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ০২:৩১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
উপজেলা চেয়ারম্যানকে সম্মাননা ক্রেস্ট উপহার দিলেন প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আমতলীতে ২য় শ্রেণির মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণ, ধর্ষক আটক কোটা বিরোধী আন্দোলনকারী সাধারণ শিক্ষার্থীদের উপর নির্যাতনের কারণে প্রতিবাদ মিছিল। জাতীয় রপ্তানী ট্রফির স্বর্ণ পদক পেল সিআইপি মেজবাহ উদ্দিন খান রানীশংকৈলে ৩০০গ্রাম গাঁজা সহ গ্রেফতার -১ ধামইরহাটে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী শহীদুজ্জামান সরকার কর্তৃক আলতাদিঘী জাতীয় উদ্যানে শোভাবর্ধনকারী গাছ রোপন আত্রাইয়ে পানিতে ডুবে আবু বক্কর সিদ্দিক নামে এক শিশুর মৃত্যু আল-আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংক পিরোজপুর শাখা কর্তৃক গ্রাহক সচেতনতা সপ্তাহ পালিত মহান একুশের শহীদ স্মরণে প্রস্তুতি সভা তৃনমূল দলের সোনারপুর জয় হিন্দ প্রেক্ষাগৃহে রাজারহাটে ধর্মীয় নেতৃবৃন্দের দক্ষতা বৃদ্ধি বিষয়ক তিন দিন ব্যাপী ওরিয়েন্টশন সভা অনুষ্ঠিত

নায়েব ওহিদুজ্জামান-সার্ভেয়ার বেল্লাল- ভূমি দস্যু ওহাব-ব‍্যবসায়ী আকবরের যোগসাজসে মিউটেশন বই গায়েব

  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ২১ জানুয়ারি, ২০২৪
  • ৬৭ বার পঠিত

বিশেষ প্রতিনিধিঃ

যশোরের রুপদিয়ায় নায়েব ওহিদুজ্জামান-সার্ভেয়ার বেল্লাল-ভূমি দস্যু ওহাব-ব্যবসায়ী আকবর মোল্যার যোগসাজসে মিউটেশন বই গায়েব হয়েছে। পূর্ণ এক শতক জমি না থাকলেও ভূমি দখলকারী আব্দুল ওহাব দুর্নীতি পরায়ন দুই সরকারি কর্মকর্তার সহায়তায় গোলাম রসুলের ৭০.২৩ শতক জমি জবর দখলে নিয়ে তা ভোগ দখল করছে। সেখানে স-মিল নির্মাণ করে দিব্বি ব্যবসা-বাণিজ্য করছে। আর পথে পথে ফকিরের মত ঘুরছেন জমির প্রকৃত মালিক গোলাম রসুল।

সদর উপজেলার রুপদিয়া বাজারের মৃত মোজাহার আলী খলিফার পুত্র গোলাম রসুল ও মৃত হোসেন খলিফার পুত্র ওহাব খলিফা। তারা একই বংশীয় চাচাত ভাই। রসুল ধর্মপ্রিয় হওয়ায় দেশের বিভিন্ন স্থানে তাবলীগ জামায়াতের মাধ্যমে দাওয়াতের কাজ করতেন। সেই সুযোগে ওহাব জালিয়াতির আশ্রয় নিয়ে রসুলের সব পৈত্রিক জমি নিজের দখলে নেন। এহেন অবস্থায় ভুক্তভোগী সমাজের নেতাদের দ্বারস্থ হয়ে কোন সমাধান না পেয়ে অভয়নগর উপজেলার আমডাঙ্গা গ্রামে ভাড়াটিয়া থেকে আইয়ান জুট মিলে শ্রমিক পেশা অবলম্বন করে জীবন নির্বাহ করতে থাকেন। রসুল রুপদিয়া ভূমি অফিসে তল্লাশি প্রক্রিয়ায় জানতে পারেন রুপদিয়া মৌজায় জেএল ২২২’র ১১১ খতিয়ানের ২৬৬, ২৬৭ দাগের পুকুর অংশে তিনি ৪২.৫০ শতাংশ জমির মালিক। ফারাজ করে পৈত্রিক সম্পত্তির মোট ০৩টি দাগে তিনি মোট ৭০.২৩ শতাংশের মালিক যা জাল দলিল, পর্চা তৈরী করে ওহাব ভোগ-দখল করে আছেন। এছাড়া অবশিষ্ট দাগগুলিতে তিনি ২২৪.৯৭ শতাংশের মালিক অর্থাৎ মোট ২৮৫.৭১ শতাংশের মালিক। তাই জমিতে প্রকৃত মালিকানা প্রতিষ্ঠা করতে ও জানান দিতে রসুল গত ২৮ অক্টোবর’২৩ শনিবার সাইনবোর্ড লাগাতে গেলে ওহাবের দুই পুত্র সুমন(৩২) ও রাকিব বাধা দিয়ে বলে ২২২নং রুপদিয়া মৌজার এসএ খতিয়ান ০৯ এসএ দাগ ২৬৬, ২৬৭ আরএস খতিয়ান ৪৮ আরএস ৮৮৫ দাগে ২৭.২৫ শতকের মধ্যে ১৭.৩৯ শতক জমি আমাদের পিতা আব্দুল ওহাবের এবং তিনি এখানে গত ২৬ অক্টোবর’২৩ বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত যশোরের মাধ্যমে ১৪৪\১৪৫ ধারা জারি করিয়েছেন।

কিন্তু কোন পাশের ১৭.২৫ শতক এবং বৈধ কাগজপত্র আছে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তর ওহাব পুত্রদ্বয় দিতে পারেননি। ভূমি দস্যু ওহাবকে সহায়তাকারী নায়েব ওহিদুজ্জামান বতর্মানে বেনাপোল পোর্ট থানা এলাকায় কর্মরত। রুপদিয়াবাসী বলেন, নায়েবের দূর্ণীতির অনুসন্ধান করলে কোটি কোটি টাকার ভূমি সংক্রান্ত অপকর্ম উদঘাটন হবে। হিরোণ সুপার মার্কেট, রুপদিয়া’র মালিক আকবর মোল্যা একইভাবে সরকারি কর্মকর্তা সার্ভেয়ার বেল্লাল’র সহযোগিতায় রসুলের জমি ভোগ-দখল করে খাচ্ছেন এবং এ কাজে তিনি ইতিমধ্যে কোটি কোটি টাকা খরচ করেছেন।

পৈত্রিক সূত্রে জমির মালিক গোলাম রসুল সাংবাদিকদের বলেন, আমি জমি বুঝে নিতে গেলে যশোরের কোতোয়ালি থানাধীন রুপদিয়া এলাকার মৃত হোসেন আলী খলিফার পুত্র ওহাব খলিফা(৬২), মৃত ফজলে করিমের পুত্র আকবর মো্যা(৬০), মহিউদ্দিন মগার পুত্র জাকির খান(৫৫), মৃত আব্দুল কাদেরের পুত্র জিয়াউল হক(৩৭) আমাকে মেরে ফেলার হুমকি দিলে আমি আদালতে মামলা দায়ের করি যার নং ৩৫৫/২২। এ ঘটনার পরে মৃত আব্দুল কাদেরের পুত্র জিয়াউল হক কৌশলে ডেকে নিয়ে জমির সকল মূল কাগজপত্র আমার কাছ থেকে জোর পূর্বক কেড়ে নেয় যে বিষয়ে আমি কোতোয়ালি থানায় অভিযোগ দিই। পরবর্তীতে জিয়াউল হকের সাথে মোবাইল ফোনে আমার কথোপকথনে লুন্ঠিত দলিল যেটা তার কাছে আছে মর্মে স্বীকারোক্তির প্রমান নরেন্দ্রপুর পুলিশ ক্যাম্পের আইসি নাজমুল হাচানকে জানালেও তিনি অদ্যবধি কোন ব্যবস্থা নেননি।

আব্দুল ওহাব ৯২৩/২২ যে মামলাটি করেছেন তার স্বপক্ষে কোন দালিলিক প্রমাণ দেখাতে পারেননি। তবুও নরেন্দ্রপুর ফাঁড়ির আইসি নাজমুল হাসান গোলাম রসূলের মালিকানার সাইনবোর্ডটি খুলে ফেলে ১৭.২৫ শতক জমির স্থলে সম্পূর্ণ জমিতে ১৪৪ ধারা বলবৎ করেছেন।

নরেন্দ্রপুর পুলিশ ক্যাম্পের আইসি নাজমুল হাচান বলেন, আমি আদালতের নির্দেশ পালন করেছি মাত্র, উভয় পক্ষকে নিয়ে ও কাগজপত্র পরীক্ষা করে প্রকৃত বিষয়টি আদালতে দাখিল করব, লুন্ঠিত কাগজপত্র উদ্ধারের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

Facebook Comments Box
এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩ গণ পত্রিকা
Theme Customized By Shakil IT Park